সর্বশেষ সংবাদ
হোম / Featured / কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে একই মঞ্চে আঃলীগ-বিএনপি

কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে একই মঞ্চে আঃলীগ-বিএনপি

নারায়ণগঞ্জের মাসদাইরে কেন্দ্রীয় ঈদগাহে কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক-ছাত্রদের সংগঠন আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফ্ফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার ইসলামী মহাসম্মেলন উপস্থিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মীরা। আহমদীয়া মুসলিম জামাতকে (কাদিয়ানী সম্প্রদায়) রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য দিয়েছেন শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ, মহানগর যুবদলের সভাপতি ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) জোহরের নামাজের পরে শুরু হওয়া মহাসম্মেলনে হাজার হাজার মাদ্রাসার শিক্ষক-ছাত্র, হেফাজতের নেতা কর্মীরা ছাড়াও আওয়ামী লীগ বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মীরা সমাবেশে উপস্থিত হয়েছেন। রাজনৈতিক মতাদর্শে পরস্পর বিরোধী হলেও আহমদীয়া মুসলিম জামাতকে (কাদিয়ানী সম্প্রদায়) রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে একই মঞ্চে উপস্থিত থেকে একই সুরে বক্তব্য রেখেছেন দুই নেতা।

শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহম্মেদ পলাশ বলেন, আমার সবচেয়ে বড় পরিচয় আমি একজন মুসলমান। আজকে নবীজীর অস্তিত্ব নিয়ে যারা কথা বলে তাদের জন্য দাঁড়িয়েছি। আমার জীবনে দুনিয়ার স্বার্থে রাজনীতিতে অনেকবার বক্তব্য দিয়েছি ও মিছিল করেছি। কিন্তু আজকের এই মিছিল ও স্লোগানের জন্য আল্লাহর নবী সাফায়ত করবেন আশা রাখি। কাদিয়ানীরা যে দাবিগুলো করেছে একজন মুসলিম হিসেবে তা কোনভাবেই মেনে নেয়া সম্ভব না। মুসলমান নাম ধরে এরা অমুসলিমের মত কাজ করছে এটা মানতে পারিনা। তাই এদেরকে অচিরেই অমুসলিম ঘোষণা করা হোক।

কাউন্সিলর খোরশেদ বলেন, আমরা সরকারের কাছে মন্ত্রীত্ব চাই না, এমপিত্ব চাই না, আমরা খাওয়াপরা চাইনা। আমরা আমাদের নবীর ইজ্জত রক্ষা করতে চাই। নবীর ইজ্জ্বত রক্ষার্থে আমরা আমাদের তাজা রক্ত রাজপথে ঢেলে দেবো ইনশাল্লাহ। আগামী তিনমাসে যদি কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণা না করা হয়, প্রয়োজনে নারায়ণগঞ্জকে আবারো শাপলা চত্বরে পরিণত করা হবে।

নারায়ণগঞ্জ প্রশাসনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আজকের মধ্যে কাদিয়ানীদের উপসানালয় বন্ধ করতে হবে। নাহলে নারায়ণগঞ্জে আবারো শাপলা চত্বরের সৃষ্টি হবে। তার দায় দায়িত্ব নারায়ণগঞ্জ প্রশাসনকে নিতে হবে। আমাদের নবী এই পৃথিবীতে মানবতার কান্ডারি। অতএব তার অনুসারী হিসেবে আমরাও চাই, কাদিয়ানীরা বাংলাদেশে নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিয়ে বসবাস করুক কিন্তু মুসলিম হিসেবে নয়। তাদের বসবাস করতে হবে অমুসলিম হিসেবে।

প্রধান বক্তা হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফি সাড়ে ৩টায় সম্মেলনস্থলে এসে উপস্থিত হয়েছেন৷ আরও উপস্থিত আছেন হেফাজতে ইসলামীর মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজতে ইসলামীর ঢাকা মহানগরের সভাপতি নূর হোসাইন কাশেমী, সাইদুর রহমান, আব্দুল হামিদ, আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী, মিজানুর রহমান চৌধুরী, নূরুল ইসলাম জিহাদী, আবদুল্লাহ মুহাম্মদ হাসান, জুনায়েদ আল হাবীব, ইমাদুদ্দীন, আবদুল বারী, আশরাফ আলী, আবদুল কুদ্দুস, তাফাজ্জুল হক, নূরুল ইসলাম ওলিপুরী, মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, আশেকে এলাহী, আব্দুল হাই মেশকাত, মুহাম্মদ ইসহাক, মামুনুল হক, নজরুল ইসলাম কাশেমী, ওবায়দুর রহমান খাঁন নদভী, মাহবুবুল হক কাশেমী, শফিকুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল, আবদুল কাদির, আবু তাহের জিহাদী প্রমুখ।

আজকের জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এম্বুলেন্স হস্তান্তর

নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুহাম্মদ আবদুল কাদেরের হাতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় …